1. admin@sahittyadiganta.com : সাহিত্য দিগন্ত ডেস্ক : সাহিত্য দিগন্ত ডেস্ক
  2. editor.sahittodigonto@gmail.com : সম্পাদক : জায়েদ হোসাইন লাকী : সম্পাদক : জায়েদ হোসাইন লাকী
মনমহুয়া : বিশুদ্ধ প্রেমের হেমলক I সৈয়দ নূরুল আলম - সাহিত্য দিগন্ত পত্রিকা
বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ০৯:২৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কবি শাহীন রেজার জন্মদিন পালিত বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান করল ADAMP ঢাকা সাহিত্য পরিষদ-এর আজীবন সদস্য হলেন পশ্চিমবঙ্গের খ্যাতিমান সমাজসেবক অনির্বাণ সামন্ত এনহেদুয়ানা : পৃথিবীর প্রথম নারী কবি। বাঙ্গালীর কণ্ঠ সাহিত্য পুরস্কার ২০২৪ পাচ্ছেন কবি, সম্পাদক সৈয়দ এরশাদুল হক মিলন মানুষের জন্য লিখে যেতে চাই -কবি দেলোয়ার হোছাইন এক ৯ নয় ১’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে। বাংলা একাডেমি পুরস্কার ফেরত দিলেন কথাসাহিত্যিক জাকির তালুকদার শীতার্ত মানুষের পাশে দাঁড়ালো ADAMP পরিবার বাংলাদেশের পত্র-পত্রিকায় ৭১ এর মুক্তিযুদ্ধ ও মুজিবনগর সরকারঃ প্রাসঙ্গিক ইতিহাস অনুসন্ধান। ড. মহীতোষ গায়েন।

মনমহুয়া : বিশুদ্ধ প্রেমের হেমলক I সৈয়দ নূরুল আলম

ঝুমু ইসলাম
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ১৫ জুলাই, ২০২৩
  • ১২১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

পৃথিবী জুড়ে যত ভালোলাগা ও ভালোবাসার শব্দ আছে, সে সব শব্দের বুনন মনমহুয়া কাব্যগ্রন্থটি। গ্রন্থের লেখক জায়েদ হোসাইন লাকী। যেসব তরুণ-তরুণীর রাতের ঘুম নষ্ট হয় প্রেম তৃঞ্চায়, সময় কাটে অপেক্ষায় অপেক্ষায়, তাদের লক্ষ্য করে হয়ত জায়েদ হোসাইন লাকী এ বইয়ের কবিতাগুলো লিখেছেন। ১০৮টা কবিতা এগ্রন্থে সংকলিত হয়েছে, যার প্রায় প্রতিটি কবিতাই প্রেমের কবিতা বলা যায়। বইটি নভেম্বর ২০২০ এ প্রকাশিত হয়েছে এবং প্রকাশ করেছে পাললিক সৌরভ।

জায়েদ হোসাইন লাকী সুন্দরের পূজারী। তিনি একটি সবুজ-কোমল মন লালন করেন, সে কারণে তার প্রতিটি কবিতা সহজ-সরল, মায়াময়। ধবল জ্যোৎ¯œার মতো আলো ছড়ায়। পাঠক আকৃষ্ট করার মতো সব ধরণের শব্দারস কবিতায় উপস্থিত। কয়েকটি উধাহরণ দেইÑ‘আরতি, বালিকা বয়সে তুমি দেখতে কেমন ছিলে?/ তোমার ঠোঁটে কি তখন চুমো খেয়েছিল চিলে?/ আরতি, ঘুমোতে যাওয়ার আগে/ দরজাটা যেন ভালো করে লাগানো হয়/ পাশের বাড়ির বখাটে আবুল/ মাঝে মাঝে রাতে বালিকাদের খাটে শোয় (কবিতা, আরতির কাছে খোলা চিঠি, পৃষ্ঠা-২৩)।’ অথবা ‘বসে বসে কার কথা যেন ভাবছি/ কারে যে এত বেশি মনে পড়ে?/ তোমারে কত ভালোবাসি সে গভীরতা মাপছি/ তোমার মনে কি আমার ছায়া পড়ে? (কবিতা, ছায়া, পৃষ্ঠা-৭৪)।’ জায়েদ হোসাইন লাকীর কবিতা আপাত ভাবে সহজ, চেনা শব্দ, বাক্য দিয়ে লেখা অথচ তারপরও কেমন যেন অধরা রয়ে যায়। কবিতার ভেতর কেমন একটি মাদকতা আছে।

 

রবীন্দ্রনাথ বলেছেন, প্রশান্তি না থাকলে ভালো কবিতা হবে না। সে কবিতার স্থায়িত্ব থাকবে না। অপর দিকে রবীন্দ্রনাথের এ কথা প্রত্যাখ্যান করে জীবনানন্দ বলেছেন, রচনার ভেতর সত্যিতার সৃষ্টির প্রেরণা এটাই দেখার বিষয়। তার সুরটা প্রশান্তির না অশান্তির সেটা বড় ব্যাপার নয়। তবে জায়েদ হোসাইন লাকীর কবিতায় যেমন প্রশান্তি আছে, তেমন সৃষ্টির প্রেরণা আছে। কাজেই একথা জোর দিয়ে বলা যায় জায়েদ হোসাইন লাকীর কবিতা পাঠকের  মনে স্থায়িত্ব পাবে। পাঠক বহুদিন মনে রাখবে।

‘শহর ছেড়ে একদিন গ্রামের জেলেজীবন বেছে নেব/ জলে আর ডাঙায়, নিসর্গেও প্রগাঢ় চুম্বনে/ কাটবে আমার উচ্ছিষ্ট জীবন/ তুমি শহর থেকে জিপে করে বেড়াতে আসবে আমার বাড়িতে/ ইতস্তত বসবে আমার নিকোনো উঠোনে/ তোমার গায়ের ঘ্রাণে উদ্বেলিত হলেও, স্মৃতিকে আমি/ ফিরে যেতে দেব না পুরনো সেই শহুরে জীবনে।/ তুমি অভিমানে স্তব্ধ হয়ে গেলেও, শেষ বয়সে এসে/ আর কতটুকুই-বা কষ্ট পাবে? (কবিতা, তোমার দুটি চোখ যারা ভেবেছিল আমার, পৃষ্ঠা-১৪)।’ এ কবিতা ঠিক এক টুকরো নীল আকাশের সারল্যের মতো। পাঠান্তে মন অপরিমিত খুশি হয়ে ওঠে। জায়েদ হোসাইন লাকীর কবিত্বশক্তি আছে তাতে বিন্দু মাত্র সন্দেহ নেই। তাঁর কবিতায় আছে এক আশ্চর্য অহংকার, অভিমান।

 

বইটির নান্দনিক প্রচ্ছদ করেছেন : আল নোমান। বইটির মূল্য : ২০০ টাকা। প্রকাশনায় : পাললিক সৌরভ।

Facebook Comments Box
Website | + posts

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

মিকি মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান। © সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় Rudra Amin